সোমবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২১, ০১:৩২ অপরাহ্ন

হাফিজুর রহমান সিদ্দিকী আমাদের সম্পদ

হাফিজুর রহমান সিদ্দিকী আমাদের সম্পদ

হাফিজুর রহমান সিদ্দিকী আমাদের সম্পদ 

আমিনুল ইসলাম কাসেমী 

গতকাল ছিল হাফিজুর সিদ্দিকী ( কুয়াকাটা হুজুর) এর ফরিদপুর নগরকান্দা মদীনাতুল উলুম মাদ্রাসায় ওয়াজ মাহফিল। “আল্লাহু আকবার” যে জনস্রোত সেখানে দেখে আসলাম, তা বর্ননার ভাষা নেই। শুধু মানুষ আর মানুষ।

যে বিশাল প্যান্ডেল আর ষ্টেজ দেখলাম, মনে পড়ল, সেই ঢাকার মানিক মিয়া এভিন্যু আর পল্টন ময়দানের কথা। এরপর মাঠের বাইরে যে লোকসমাগম, তাতে তো মাথাই নষ্ট বলা চলে। আশে- পাশের দু এক কিলোমিটার জুড়ে মানুষের ভীড়ে যেন চলাচল স্লথ হয়ে গেল। পা ফেলানোর জায়গা নেই। এত ভীড়, না সামনে এগনো যায়, না পিছে।জনসমুদ্রে রুপ নিয়েছিল নগরকান্দা এলাকাটি।

আমি হতভম্ব হয়ে গেলাম দৃশ্যগুলো দেখে। কি এক আজীব ব্যাপার। বহু চিন্তা করলাম। অনেক কথা, অনেক কিছু মনে উদয় হল। তবে শেষমেষ এটাই আমার মনে বারবার সায় দিতে লাগল। এটা মহান প্রভুর বিশেষ অনুগ্রহ।

পবিত্র কুরআনে আছে, জালিকা ফাদলুল্লাহি ইউতি মাইয়াশা -এটা মহান আল্লাহর বিশেষ অনুগ্রহ,যেটা আল্লাহ তায়ালা যাকে ইচ্ছা তাঁকে দান করেন। হাফিজুর রহমান সিদ্দিকী সাহেবের উপর আল্লাহর বিশেষ অনুগ্রহ।এটা সম্পুর্ণ আল্লাহ প্রদত্ত। মানুষ যতই হিংসা করুক। কিন্তু আল্লাহ যাকে দান করেন, সেখানে বান্দার হিংসা করে কোন লাভ নেই।

আল্লাহ তায়ালা তাঁকে এমন এক যোগ্যতা দিয়েছেন, এখন সে যা বলে, তাতে মানুষের হৃদয়ে গিয়ে আঘাত করে। মানুষ শুধু শুনতে চায়। এবং তাঁর কথা শুনার জন্য পাগলপারা হয়ে থাকে।

সবচেয়ে বড় যে জিনিসটা লক্ষ্য করলাম, যাদের ওয়াজ শোনার বেশী দরকার, এমন লোকগুলো জমা হচ্ছে তাঁর মাহফিলে। আমরা মৌলভী সাহেবরা তো ওয়াজ করতে পারি বা ওয়াজ শুনে থাকি।কিন্তু হাফিজুর রহমান সাহেবের মাহফিলে জমা হচ্ছে সব গন্ড- মুর্খ,বে- নামাজী, এবং বিভিন্ন তরিকার মানুষ। যাদেরকে কোনদিন ওয়াজের দাওয়াত দিয়ে আনা যায় না, সে সমস্ত লোকগুলো জমা হচ্ছে হাফিজুরের মাহফিলে।
মানে বিশাল এক খেদমত করে যাচ্ছেন হাফিজুর রহমান সিদ্দিকী সাহেব। যেটা বাংলাদেশের কম সংখ্যক লোক করে থাকেন।

আজকাল স্রোতাদের মধ্যে তো ডিভাইডেড। এক পীরের ওয়াজ অন্য পীরের মুরিদেরা শোনেনা। রাজনৈতিক সংগঠনের বক্তার ওয়াজ, সব মানুষ শুনতে চায় না।

আলহামদুলিল্লাহ, হাফিজুর রহমান সিদ্দিকী সাহেবের মাহফিলে কোন ভাগাভাগি নেই।কোন ভেদাভেদ নেই।সর্বস্তরের মানুষ হাজির সেখানে।

এরকম ওয়ায়েজের আমাদের দেশে কমই জন্মগ্রহণ করেছেন। তাঁর মত ব্যক্তিত্বের কারণে উজ্জল হচ্ছে আলেম সমাজের ভাবমুর্তি। সে এখন আলেম সমাজের মহা মুল্যবান সম্পদ। আল্লাহ তায়ালা তাঁকে নেক হায়াত দান করুন। তাঁর খেদমত কবুল করুন। আমিন।

লেখক : কলামিস্ট

নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved 2018 shilonbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com