মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৯:৫৪ পূর্বাহ্ন

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৬তম জন্মবার্ষিকী

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৬তম জন্মবার্ষিকী

আদিব সৈয়দ ● বাংলা সাহিত্য সৌধের কালজয়ী প্রতিভা, বাঙালির সৃজন-মননে দীপ্তমান কীর্তি পুরুষ বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৬তম জন্মবার্ষিকী তাঁর স্মৃতি বিজড়িত কুষ্টিয়ার শিলাইদহ কুঠিবাড়িতে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে সোমবার ২৫ বৈশাখ থেকে শুরু হচ্ছে তিন দিনব্যাপী বিভিন্ন অনুষ্ঠানমালা।

শতবর্ষ ধরে বিশ্বকবির অনন্য প্রতিভার আলো উদ্ভাসিত করে চলেছে বাঙালির জীবন ও দর্শন। বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাংলা ভাষাকে পরিচিত করেছেন বিশ্ব দরবারে। নিভৃত বাংলার প্রত্যন্ত অঞ্চল কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালি উপজেলার শিলাইদহে কবির জীবনের বেশ কিছু সময় কেটেছে তাঁর লেখনির মাধ্যমে ফুটে উঠেছে এ অঞ্চলের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য। সেই স্মৃতি বুকে ধারণ করেন আজও কালের সাক্ষী হয়ে দাঁড়িয়ে আছে শিলাইদহ কুঠিবাড়ি। বাঙালির আত্মিক মুক্তি ও সার্বিক স্বনির্ভরতার প্রতীক, বাংলাভাষা ও সাহিত্যের উৎকর্ষের অন্যতম মহানায়ক, কাব্যগীতির শ্রেষ্ঠ স্রষ্টা, দ্রষ্টা ও ঋষিতুল্য বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। কবিগুরুর জন্মবার্ষিকীতে শিলাইদহকে সাজানো হয়েছে বর্ণিল সাজে।

জেলা প্রশাসনের আয়োজনে অনুষ্ঠানমালার বাইরেও এখানে বিস্তীর্ণ এলাকাজুড়ে বসেছে গ্রামীণ মেলা। প্রায় সপ্তাহব্যাপী চলবে এ মেলা। দোকানিরা মেলায় হরেক রকমের পণ্য সামগ্রীর পসরা সাজিয়ে বসেছে। কবি পদধূলির শিলাইদহ কুঠিবাড়িতে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় না হওয়ায় এ এলাকার সাহিত্য-সংস্কৃতিমনা মানুষ হতাশ হলেও লাখো মানুষের ঢল নামবে এই শিলাইদহের কুঠিবাড়িতে। মিলনমেলায় পরিণত হবে ঠাকুরবাড়িচত্বর। স্থানীয় প্রশাসনের আয়োজনে কবি আঙিনার সব দিক টইটুম্বর হয়ে উঠবে উৎসুকদের পদভারে। এই অনুষ্ঠানের সময় ঠাকুরবাড়ি বন্ধ থাকলেও দর্শকরা আসে মূলত: কবিকে স্মরণ করতে। দেশ-বিদেশের শত শত দর্শনার্থী ও পর্যটকরা আসবেন শিলাইদহের এই কবি পাদপীঠে।

কুমারখালীর নিভৃত পল্লীর এই শিলাইদহে কুঠিবাড়ি শুধু গ্রামকে শহর সাদৃশ্যই করেনি, পাল্টে দিয়েছে এখানকার মানুষের জীবনযাত্রা। এখানে স্থানীয়দের চেয়ে এখন বাইরের মানুষেরই বেশি আনাগোনা থাকে। তবে এখনও সেভাবে ভাল পর্যটক আকর্ষণীয় হোটেল গড়ে ওঠেনি। যেখানে দিন বদলের সাথে সাথে কিছুটা হলেও উন্নয়ন কর্মকা- চোখে পড়ে। এক সময় ঠাকুরবাড়িতে অসংখ্য পুরাতন গাছ ছিল, সেগুলো মারা গেছে। মারা গেছে সেই ঐতিহাসিক বকুল গাছটিও। অবশ্য ঠাকুরবাড়ির শ্রীবৃদ্ধি করতে ও স্মৃতিরক্ষায় তার স্থলে একটি বকুল গাছ লাগানো হয়েছে। কিন্তু সেভাবে ফুটে উঠেনি সৌন্দর্য।

বিশ্ব কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ১৮৬১ সালের ৭ মে কলকাতার জোড়াসাঁকোর ঠাকুর পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। রবীন্দ্রনাথের পূর্বপুরুষ গণ নাটোরের জমিদার পরিবারের কাছ থেকে শিলাইদহের জমিদারী ক্রয় করে নিয়েছিলেন। জমিদারী পরিচালনার জন্য রবীন্দ্রনাথ যুবক বয়সেই এই শিলাইদহের নীল কুঠিতে আসেন। পদ্মার ভাঙনে কুঠি ভবনটি ১৮৯২ সালে ১৩ বিঘা জমির উপর ৬ বিঘা জমি পাঁচিল দিয়ে ঘেরাও করেন। এই রবীন্দ্র কুঠিবাড়িতে বসেই রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কবিতা, গল্প, প্রবন্ধ, গান রচনা করতেন। জমিদারী পরিচালনার জন্য তিনি দীর্ঘকাল এখানে কাটান। এ মহান কবি ১৯৪১ সালের ৭ আগস্ট মৃত্যুবরণ করলে সরকার ওই জায়গা সংরক্ষিত ঘোষণা করেন।

কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক জহির রায়হান কুষ্টিয়ার শিলাইদহ কুঠিবাড়ি পরিদর্শন করেছেন। সোমবার ২৫ বৈশাখ সোমবার প্রথম দিনে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ। ২৬ বৈশাখ মঙ্গলবার ২য় দিনে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন কুষ্টিয়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুর রউফ চৌধুরী। ২৭ বৈশাখ বুধবার ৩য় দিনে প্রধান অতিথি থাকবেন খুলনা বিভাগীয় কমিশনার আবদুস সমাদ। অনুষ্ঠানের ৩ দিনই সভাপতিত্ব করবেন কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক জহির রায়হান।

নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved 2018 shilonbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com