সোমবার, ২৬ অগাস্ট ২০১৯, ১২:৪৪ পূর্বাহ্ন

মিন্নি গ্রেপ্তার

মিন্নি গ্রেপ্তার

মিন্নি গ্রেপ্তার শীলনবাংলা ডটকম :  বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলার প্রধান সাক্ষী ও নিহত রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিকে দিনব্যাপী জিজ্ঞাসাবাদের পর মঙ্গলবার রাত ৯টায় গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রাত সোয়া ৯টায় সংক্ষিপ্ত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান বরগুনার পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন।

এ সময় পুলিশ সুপার জানান, মামলার মূল রহস্য উদঘাটন ও সুষ্ঠু তদন্তের জন্য আজ সকাল ১০টার দিকে মিন্নিকে তাঁর সদর উপজেলার দক্ষিণ মাইঠা এলাকার বাড়ি থেকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ লাইন্সে আনা হয়। দিনব্যাপী জিজ্ঞাসাবাদ শেষে এবং এর আগেও দীর্ঘ সময় ধরে প্রাপ্ত তথ্যাদি পর্যালোচনা ও বিশ্লেষণ করে এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে মিন্নির সংশ্লিষ্টতা প্রাথমিকভাবে প্রতীয়মান হয়েছে। তাই মামলার মূল রহস্য উদঘাটন এবং সুষ্ঠু তদন্তের জন্য আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিকে আজ রাত ৯টায় গ্রেপ্তার করা হয়।

এর আগে দুপুর ১২টায় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন বলেন, মামলার মূল রহস্য উদঘাটন ও সুষ্ঠু তদন্তের জন্য এ মামলার এক নম্বর সাক্ষী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিকে সকাল পৌনে ১০টায় তাঁর জবানবন্দি গ্রহণের জন্য ডাকা হয়েছে।

পুলিশ সুপার বলেন, ২৬ জুন সংঘটিত চাঞ্চল্যকর রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় পুলিশ বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে এজাহারভুক্ত সাতজন এবং তদন্তে প্রাপ্ত সন্দিগ্ধ গ্রেপ্তারকৃত সাতজনসহ মোট ১৪ জন আসামিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এজাহারভুক্ত গ্রেপ্তারকৃত চারজন এবং তদন্তে প্রাপ্ত সন্দিগ্ধ গ্রেপ্তারকৃত ছয়জনসহ মোট ১০ আসামিকে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি গ্রহণের জন্য আদালতে পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়া গ্রেপ্তারকৃত এজাহারভুক্ত দুজন এবং তদন্তে প্রাপ্ত সন্দিগ্ধ আসামি একজনসহ মোট তিন আসামিকে বিজ্ঞ আদালতের অনুমতিক্রমে বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। পুলিশ এ মামলায় এজাহারে বর্ণিত আসামিসহ সব পলাতক আসামিকে গ্রেপ্তারের জন্য সব ধরনের কৌশল অবলম্বন করে নিরলস চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

সকালে মিন্নিকে পুলিশ লাইনে নেওয়ার পর পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন জানান, মিন্নি রিফাত শরীফ হত্যা মামলার এক নম্বর সাক্ষী। তাই তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বরগুনা পুলিশ লাইন্সে আনা হয়েছে। তাঁর সঙ্গে তাঁর বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোরও রয়েছেন।

এ বিষয়ে মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোর জানান, রিফাত শরীফ হত্যাকাণ্ডে জড়িত এক অভিযুক্তকে শনাক্ত করার জন্য মিন্নিকে বরগুনার পুলিশ লাইন্সে আনা হয়েছে। শনাক্তকরণ শেষ হলে মিন্নিকে বাড়ি ফিরিয়ে নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

এর আগে আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিকে গ্রেপ্তার ও রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের দাবিতে গত শনিবার রাতে বরগুনা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন নিহত রিফাত শরীফের বাবা আবদুল হালিম দুলাল শরীফ। মিন্নিকে গ্রেপ্তারের দাবিতে রিফাতের বাবা (মিন্নির শশুর) দুলাল শরীফের বক্তব্যকে বানোয়াট ও মনগড়া দাবি করে সংবাদ সম্মেলন করেছেন আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি। রোববার দুপুর ১২টার দিকে বাবার বাড়িতে সংবাদ সম্মেলন করেন তিনি।

অন্যদিকে রোববার বেলা ১১টার দিকে আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিকে গ্রেপ্তারের দাবিতে বরগুনা প্রেসক্লাবের সামনে সর্বস্তরের জনগণের ব্যানারে মানববন্ধন করা হয়। যেখানে বক্তব্য দেন রিফাত শরীফের বাবা দুলাল শরীফ, রিফাতের চাচা আবদুল আজিজ শরীফ, বরগুনা-১ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভুর ছেলে জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষযক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সুনাম দেবনাথ।

নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved 2018 shilonbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com