শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ০২:৪৫ অপরাহ্ন

বাঙালি সমাজ ও রাষ্ট্রে সুফিবাদ— চিন্তাঙ্গনের আসর ১২ নভেম্বর

বাঙালি সমাজ ও রাষ্ট্রে সুফিবাদ— চিন্তাঙ্গনের আসর ১২ নভেম্বর

শীলনবাংলা রিপোর্ট : বাঙালি সমাজ ও রাষ্ট্রে সুফিবাদ এবং পীর সাহেব চরমোনাই রহ. সংযোজন চিন্তা আসর অনুষ্ঠিত হবে ১২ নভেম্বর ২০১৮ সোমবার বাদ আসর। রাজধানীর পুরানা পল্টনের ইসলামী আন্দোলন কেন্দ্রীয় অফিস মিলনায়তনে।

বিস্তৃত চিন্তার উন্মুক্ত প্রাঙ্গণ চিন্তাঙ্গন আয়োজিত আসরে আলোচনা করবেন ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন বাংলাদেশের সভাপতি ও সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা মাওলানা শেখ ফজলুল করীম মারুফ, মুসলিম সভ্যতা সংস্কৃতি অধ্যয়ন কেন্দ্র-এর প্রধান পরিচালক আ হ ম আলাউদ্দিন। সভাপতিত্ব করবেন সংগঠনের পরিচালক শেখ মুহাম্মদ আল আমীন।

নিচে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন বাংলাদেশের সভাপতি ও সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা মাওলানা শেখ ফজলুল করীম মারুফ-এর এ বিষয়ক স্ট্যাটাসটি তুলে ধরা হলো-

আমাকে এক “আধুনিকমনস্ক ইসলামপন্থী” সুফিবাদ সম্পর্কে আমার অবস্থান জানতে চেয়েছিলো।

আমি দৃঢ়তার সাথে বলেছিলাম, হ্যা! আমি একজন সুফিবাদী। সে বেশ অবাক হয়েছিলো।

সুফিবাদ শব্দে অনেকেই আশ্চর্য হয়। অনেকেই সুফিবাদ সম্পর্কে নেতিবাচক ধারনা রাখে।

এই আশ্চর্য হওয়া এবং নেতিবাচক ধারনা করা নিছকই অজ্ঞতা।

কারন সুফিবাদ ভিন্ন পরিভাষায় বারংবার কুরআনে এসেছে। সত্য বলতে, সু্ফিবাদের মুল তত্ত্ব ছাড়া ইসলামের কোন আমলই আল্লাহর কাছে গ্রহনযোগ্য হয়না।

আবার সুফিবাদ সম্পর্কিত যে সাধারন ধারনা যে, সুফিগন সমাজবিমুখ সন্যাস জীবন যাপন করতেন সেই ধারনাও অন্তত বাঙ্গালী সুফিগনের ক্ষেত্রে ভুল।

বাঙ্গালী সুফিগনের প্রায় সকলেই ছিলেন জালিমের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ যোদ্ধা। এবং নিজ এলাকায় সভ্যতার জনক।

মনে করা হয়, সুফিবাদ “পলিটিকাল ইসলাম” এর বিরুদ্ধ ধারনা। আদতে এটা সম্পুর্নই মিথ্যা ধারনা। বাংলাদেশে সুফিবাদের মাধ্যমেই ইসলামের সামাজিক ও রাজনৈতিক ক্ষমতায়ন হয়েছে।

সবমিলিয়ে “বাঙ্গালী সুফিবাদ” এক অনন্য বিষয়। যাকে বাঙ্গালীর নিজস্ব ইতিহাসের মাধ্যমেই বুঝতে হবে।

এই চিন্তা আসরে সেই বোঝা ও অনুবাধনের চেষ্টা করা হবে।

আচ্ছা! পীর সাহেব চরমোনাই রঃ কি সুফি? নাকি রাজনীতিবিদ?

এটা নিয়ে একটা তর্ক করা যাবে। যদি পশ্চিমে উদ্ভাবিত “মডারেট ইসলাম” এর চোখ দিয়ে দেখেন তাহলে পীর সাহেব চরমোনাই একজন সুফি। রাজনীতিবিদ নন।

আবার ট্রাডিশনাল সুফিবাদী ধারনা থেকে দেখলে মনে হবে, পীর সাহেব চরমোনাই একজন রাজনীতিবিদ।

আদতে পীর সাহেব চরমোনাই রঃ একজন শতভাগ “নায়েবে নবী”।

আর চলতি ভাষায় বলতে গেলে তিনি একজন “মর্ডান বেঙ্গলি সুফিইজম” এর প্রবক্তা। তিনি “মর্ডান সুফিস্ট”।

একটু নতুন লাগছে!?

চিন্তা আসরে আসুন! সমাধান হয়ে যাবে ইনশা আল্লাহ।

নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved 2018 shilonbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com