সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ০৬:২৮ অপরাহ্ন

ফিরে গেছিলাম ছোটবেলায় | মাসউদুল কাদির

ফিরে গেছিলাম ছোটবেলায় | মাসউদুল কাদির

ফিরে গেছিলাম ছোটবেলায়

মাসউদুল কাদির

কীভাবে ছোটবেলায় ফিরে যাওয়া যায়। বিস্ময়কর বিষয়। এমন গবেষণা করতে গেলে বিজ্ঞানীদের ঘুম হারাম হয়ে যাবে। সেই ছোটবেলার সাথিসঙ্গী-বন্ধু-বান্ধবদের সঙ্গে সাক্ষাৎ হলে কি আর বুড়ো বয়সে থাকা যায়? কবিরা হয়তো বলবেন, আমার শৈশব ফিরিয়ে দাও। যারা লেখালেখি করেন তারা হয়তো বলবেন, লেখায় শৈশব ফিরে পাওয়া যায়। সুইডিশ লেখক অ্যাস্ত্রিদ লিন্দগ্রেনের (১৯০৭-২০০২) লেখা পড়েও এমন আনন্দ অনুভব করেছেন অনেকে। শিশুদের জন্য তাঁর লেখাগুলো পড়তে বসলে শৈশবে ফিরে যেতে মন চায়

ছোটবেলায় যেসব বন্ধুদের সঙ্গে পড়ালেখা করার জন্য টেবিলে বসেছি, যাদের সঙ্গে হাজারও দুষ্টুমী করেছি, তাদের কাছে পেলে কেমন লাগে বলুন? এক কথায় অসাধারণ।

আমাদের প্রিয় বন্ধু মাওলানা যাকারিয়া ইদরিসের আহ্বানে যাত্রাবাড়ির কোনাপাড়ায় চৌধুরীপাড়া মাদরাসায় যারা পড়েছি আমরা সবাই একত্র হলাম। মিসবাহুল কুরআন ওয়াসসুন্নায় একে একে অনেকেই এসে হাজির হলেন। ভরপুর মেহমানদারির আয়োজন করলেন মাওলানা যাকারিয়ার মাদরাসার শিক্ষক-তলাবারা। মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা মাওলানা ইউনুস ইদরিসও সবার খোঁজখবর নিলেন।

সম্ভবত আমি সবার পরে গিয়ে হাজির হয়েছি। ব্যস্ততাতো সবার একরকম নয়। ফলে সবাই হাজিরও হতে পারেনি। যারা এসেছেন, আমরা সবাইকে স্বাগত জানিয়েছি। ঢাকা থেকে মাওলানা এনায়েত কবির, মাওলানা আবু মূসা কবির, মাওলানা মশিউর রহমান, মাওলানা বায়েজিদ আমির, মাওলানা আবদুল ওয়াহিদ, মাওলানা রফিকুল ইসলাম, মাওলানা আবদুর রহমান, মাওলানা মাসউদুর রহমান। কুমিল্লা থেকে মাওলানা মারুফুর রহমান, মাওলানা যোবায়ের, মাওলানা সাইফুল ইসলাম। গাজীপুর থেকে মাওলানা আবদুল্লাহ আল মাসউদ, মাওলানা কবির। বরিশাল থেকে মাওলানা শহিদুল ইসলাম। ময়মনসিংহ থেকে ওয়াসিল হাসান।

ক্লাসমিটদের সঙ্গে মিট হলে সবসময় একেকজন উস্তাদ আলোচনায় উঠে আসেন। আমরা নিজেরা পরস্পরের খবর নিলাম। পারিবারিক হালপুরসি করলাম। নিকেল করা বিকেলটা সত্যিই জমে উঠেছিল দারুণভাবে। পরবর্তী আয়োজনে আবারও সবাই সঙ্গ দেবেন-আশা রাখি। ভালো থাকুন।

নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved 2018 shilonbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com