মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯, ০৭:৪৬ পূর্বাহ্ন

‘নীতির প্রশ্নেই তিনশো আসনে ইসলামী আন্দোলন’

‘নীতির প্রশ্নেই তিনশো আসনে ইসলামী আন্দোলন’

তিনশো আসনেই লড়বে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। পীর সাহেব চরমোনাই মুফতি রেজাউল করীমের নেতৃত্বাধীন ইসলামী আন্দোলন বরাবরই এভাবে নির্বাচন করে আসছে। এখনো তারা কোনো নির্বাচনে সংসদ সদস্য কেউ হতে পারেনি। নতুন করে অন্যান্য দলের ইসলামিক নেতারাও দাঁড়াবেন। সে অর্থে তারা কী তাদের জন্য কোনো সুযোগ দেবেন। নাকি তিনশো আসনেই লড়বেন।

এ বিষয়েই কথা বলেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় নির্বাচন মনিটরিং সেলের সদস্য মুফতি দেলাওয়ার হোসাইন সাকী। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন মাসউদুল কাদির।

চরমোনাই পীর সাহেব তো এই তফসিল ঘোষণাকে দুর্ভাগ্যজনক বলেছেন। ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ কী বর্তমান তফসিল ঘোষণার মধ্য দিয়ে নির্বাচনে যাবে বলে মনে করেন? এমন প্রশ্ন করা হলে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় সদস্য ও মাসিক আল কারীমের সম্পাদক মুফতী দেলাওয়ার হোসাইন সাকী বলেন, আমরা তফসিল ঘোষণাকে গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছি! নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের প্রস্তাবনাগুলো কে উপেক্ষা করে নির্বাচন কমিশন তড়িঘড়ি করে তফসিল ঘোষণার মাধ্যমে আমরা চক্রান্তের আবাস পাচ্ছি! নির্বাচনে অংশগ্রহণের বিষয়ে স্পষ্ট বক্তব্য দেয়ার সময় এখনো আসেনি, আমরা পর্যবেক্ষণ করছি। নিবাচন কমিশন এবং সরকারের আচরণের উপর ডিপেন্ড করবে নির্বাচনে অংশ নেব কিনা। ৩০০ আসনে ইসলামী আন্দোলনের নির্বাচন পরিকল্পনা মাফিক কার্যক্রম চলমান থাকবে। আমরা প্রস্তুতিতে কোন প্রকার ঘাটতি রাখবো না ইনশাল্লাহ।

আপনাদের দলের কেন্দ্রীয় নেতারা বার বার তিনশো আসনে প্রার্থী দেয়ার কথা বলে থাকেন। যেখানে অন্য ইসলামী দলগুলোর প্রার্থী থাকবে সেখানেও আপনারা প্রার্থী দেবেন কেন? জানতে চাওয়া হলে মুফতী দেলাওয়ার হোসাইন সাকী বলেন, আজ ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ছাড়া অন্যান্য ইসলামী দলগুলো হয়তো ২০ দল, নয়তো আওয়ামী লীগের সাথে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে। দুয়েকটি জোটের বাইরে থাকলেও গণবিচ্ছিন্ন ব্যানার সর্বস্ব। তাই ৩০০ আসনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে ইনশাল্লাহ। এখানে আদর্শ ও নীতি মুখ্য। তাই নো আওয়ামীলীগ নো বিএনপি ইসলাম ইজ দ্যা বেস্ট-এর চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে আমরা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছি। যেহেতু চোখের বাইরে শক্তি ও কোন ব্যানার নাই, সেহেতু অন্য ইসলামী সংগঠন আমাদের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বী হতে পারবে না।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় নির্বাচন মনিটরিং সেলের সদস্য মুফতি দেলাওয়ার হোসাইন সাকী সবশেষে মুখে স্লোগান তুলে বলেন,
সব মার্কার দেখা শেষ
হাতপাখার বাংলাদেশ

নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved 2018 shilonbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com