বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ০৩:০৪ অপরাহ্ন

দাম বাড়ার শীর্ষে লোকসানি প্রতিষ্ঠানগুলো

দাম বাড়ার শীর্ষে লোকসানি প্রতিষ্ঠানগুলো

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক • সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবার দাম বাড়ার শীর্ষ তালিকায় দাপট দেখিয়েছে লোকসানি প্রতিষ্ঠানগুলো। প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) দাম বাড়ার শীর্ষ দশ কোম্পানির মধ্যে লোসকানি প্রতিষ্ঠান রয়েছে পাঁচটি।

কোম্পানি পাঁচটি হলো- অলটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ,খুলনা প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিং, আরামিট সিমেন্ট, সাভার রিফ্রেকটোরিজ এবং স্ট্যান্ডার্ড সিরামিক। এছাড়া বাণিজ্যিক কার্যক্রম বন্ধ ইউনাইটেড এয়ারওয়েজও রয়েছে দাম বাড়ার শীর্ষ দশে। লোকসানে নিমজ্জিত পাঁচ প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে বাণিজ্যিক কার্যক্রম বন্ধ থাকা ইউনাইটেড এয়ারওয়েজও বিনিয়োগকারীদের কোনো লভ্যাংশ দিতে পারছে না। ফলে পঁচা বা ‘জেড’ গ্রুপে স্থান হয়েছে কোম্পানিগুলোর। পুঁজিবাজারের ভালো কোম্পানির তালিকায় বা ‘এ’ গ্রুপে থেকেও যে কোনো মুহূর্তে ব্যবসা বন্ধ হয়ে যেতে পারে এমন আশঙ্কায় থাকা তুং হাই নিটিং অ্যান্ড ডাইংও দাম বাড়ার শীর্ষ দাশ তালিকায় স্থান করে নিয়েছে। গুঞ্জন রয়েছে কোম্পানিটির স্বাভাবিক পরিচালনা হচ্ছে না এবং পরিচালনায় পরিবর্তন আনার চেষ্টা চলছে।

অলটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ : বৃহস্পতিবার দাম বাড়ার শীর্ষ স্থান দখল করেছে ‘জেড’ গ্রুপের এই কোম্পানিটি। প্রতিষ্ঠানটির শেয়ার দাম বেড়েছে ৯ দশমিক ৯০ শতাংশ। শেয়ার দামে এমন উলম্ফন ঘটলেও সর্বশেষ প্রকাশিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী ২০১৬-১৭ অর্থবছরে প্রতিষ্ঠানটি শেয়ারপ্রতি ২ টাকা ১৩ পয়সা লোকসানে রয়েছে।

খুলনা প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিং : সর্বশেষ সমাপ্ত হিসাব বছরে (২০১৬-১৭) শেয়ারপ্রতি ১ টাকা ২২ পয়সা লোকসান হয়েছে খুলনা প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিংয়ের। লোকসানের কারণে প্রতিষ্ঠানটির শেয়ারহোল্ডারদের লভ্যাংশ না দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আগের বছর (২০১৫-১৬) কোম্পানিটি বিনিয়োগকারীদের কোনো লভ্যাংশ দেয়নি। অথচ এ প্রতিষ্ঠানটিই বৃহস্পতিবার দাম বাড়ার শীর্ষ তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। কোম্পানিটির শেয়ার দাম বেড়েছে ৯ দশমিক ৮০ শতাংশ।

আরামিট সিমেন্ট : দাম বাড়ার তালিকায় চতুর্থ স্থানে রয়েছে কোম্পানিটি। জেড গ্রুপের এই প্রতিষ্ঠানটির শেয়ার দাম বেড়েছে ৯ দশমিক ৯ দশমিক ৭৪ শতাংশ। পঁচা কোম্পানির তালিকায় থাকা কোম্পানিটি চলতি অর্থবছরের (২০১৭-১৮) প্রথম প্রান্তিকে শেয়ারপ্রতি ১ টাকা ৭৩ পয়সা লোকসানে রয়েছে।

ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ : দাম বাড়ার দিক থেকে পঞ্চম স্থানে রয়েছে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ। কোম্পানিটির শেয়ার দাম বেড়েছে ৯ দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ। মুনাফায় থাকলেও কোম্পানিটির ব্যবসায়িক কার্যক্রম বন্ধ। এরপরও প্রতিষ্ঠানটি শেয়ারহোল্ডারদের লভ্যাংশ হিসেবে নিয়মিত বোনাস শেয়ার দিচ্ছে।

সাভার রিফ্রেকটোরিজ : বছরের পর বছর ধরে লোকসানে নিমজ্জিত এই কোম্পানিটির শেয়ার দাম বেড়েছে ৭ দশমিক ৬২ শতাংশ। এর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটি দাম বাড়ার শীর্ষ তালিকায় ষষ্ঠ স্থান দখল করেছে। বিনিয়োগকারীদের কোনো লভ্যাংশ না দিলেও কোম্পানিটির শেয়ার দাম আকাশচুম্বি। অথচ রিজার্ভ বলেও কিছু নেই সাভার রিফ্রেকটোরিজের।

স্ট্যান্ডার্ড সিরামিক : দাম বাড়ার শীর্ষ তালিকায় অষ্টম স্থানে রয়েছে স্ট্যান্ডার্ড সিরামিক। সর্বশেষ সমাপ্ত হিসাব বছরে (২০১৬-১৭) কোম্পানিটি শেয়ারপ্রতি ৩৯ পয়সা লোকসানে রয়েছে। অথচ প্রতিষ্ঠানটির শেয়ার দাম সেঞ্চুরির কাছাকাছি। বৃহস্পতিবার লেনদেন শেষে কোম্পানিটির শেয়ার দাম ৮৪ টাকা ৪০ পয়সায় দাঁড়িয়েছে। এদিন কোম্পানিটির প্রতিটি শেয়ারের দাম বেড়েছে সাড়ে পাঁচ শতাংশ।

শীলন/৩০৮

নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved 2018 shilonbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com