রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৫:৪৩ অপরাহ্ন

তওবার দরজা খোলা | মাওলানা আমিনুল ইসলাম

তওবার দরজা খোলা | মাওলানা আমিনুল ইসলাম

তওবার দরজা খোলা | মাওলানা আমিনুল ইসলাম

আমি অবাক হচ্ছি না, আমির হামজা সাহেব যদি হাফিজুর রহমান কুয়াকাটা হুজুরের মাহফিলে আসেন। আশ্চর্য হচ্ছি না, তারেক মনোয়ার আর হাফিজুর রহমান কুয়াকাটাকে একই ফ্রেমে বন্দী দেখলেও। বরং আমির হামজা ও তারেক মনোয়ারকে সাধুবাদ জানাতে মন চাইছে। কারণ, তারেক মনোয়ার ও আমির হামজা হয়তো তাদের এতদিনের ভুল বুঝতে পেরেছেন। এতদিন তারা মওদুদী সাহেবের ভ্রান্ত আক্বিদা বিশ্বাস লালন করে এসেছিলেন। এতক্ষণে হয়তো তারা বুঝতে পেরেছেন যে, মওদুদী সাহেব চরম গোমরাহীর মধ্যে ছিলেন। এবং তার চিন্তা-ধারায় যারা বিশ্বাসী, তারাও চরম বিভ্রান্তির মধ্যে আছেন।

এ জন্য তারেক মনোয়ার ও আমির হামজাসহ যেসব মওদুদী ঘরানার বক্তারা আছেন, তারা যেন মওদুদী আক্বিদা থেকে তওবা করে একদম ফ্রেশ হয়ে যান— এটাই আমার একান্ত প্রত্যাশিত বিষয়।

মওদুদী সাহেব ছিলেন একজন বিতর্কিত লেখক। তার চিন্তা-ধারা ছিল চরম গোমরাহী। মওদুদী সাহেবের কলমের খোঁচা থেকে আম্বিয়া আলাইহিমুচ্ছালাম এবং সাহাবায়ে কেরাম পর্যন্ত রেহাই পাননি। আফসোসের বিষয়, তিনি বড়ই দাম্ভিকতার সাথে কলম চালাতেন। মওদুদীর তাফসীরসহ তার বহু বিতর্কিত লিখনী রয়েছে। যে লিখনী পড়লে একজন সুস্থ-মস্তিষ্কের মানুষ গোমরাহীর দিকে ধাবিত হওয়ার তীব্র আশংকা রয়ে যায়।

সেই মওদুদী সাহেবের ভ্রান্ত আক্বিদা বিশ্বাস ধারণ করে আসছেন, আমাদের দেশের একটা তথাকথিত ইসলামী (?) দল ও তার কিছু নেতা-কর্মী। সেই সাথে যোগ হয়েছে, এ দেশের কিছু ওয়ায়েজ। বাংলা প্রবাদ আছে— দুষ্ট লোকের মিষ্ট কথা, ঘনিয়ে বসে পাশে/কথা দিয়ে কথা লয়, প্রাণে বধে শেষে।অর্থাৎ তেমনইভাবে ওই ভ্রান্ত-ঘরানার ওয়ায়েজগণ আলোচনার মাধ্যমে প্রাঞ্জল ভঙ্গিমায় এবং মোহাচ্ছন্ন মিষ্ট-সুরে দেশের আনাচে-কানাচে মওদুদী মতবাদ প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। এ নিয়ে দেশের বিভিন্ন জায়গায় সমালোচনা ও নানা প্রতিক্রিয়া দেখা দিচ্ছে। স্থানে স্থানে সাধারণ ধর্মপ্রাণ জনতার প্রতিবাদের মুখেও পড়তে দেখা যাচ্ছে তাদের।

লক্ষণীয় বিষয়, এক সময় ওইসব মওদুদী সমর্থিত ওয়ায়েজীনরা সাধারণতঃ লা-মাজহাবী ঘেঁষা…। ফলে, লা-মাজহাবীদের পক্ষে বিভিন্ন ওয়াজ বা ফতোয়া বাস্তবায়ন করার চেষ্টা তাদের দেখা গেছে। অবশ্য সে মিশনে তারা ব্যর্থ হয়েছে। কারণ, এ দেশে হক্কানী আলেমগণ বেশ সোচ্চার। হক্বানী ওলামায়ে কেরাম জাতিকে লা-মাজহাবীদের অসারতা সম্পর্কে সতর্ক করে যাচ্ছেন সব-সময়। এ জন্য তাদের মিশন ব্যর্থ। ফলে, মওদুদী মতবাদ ও লা-মাজহাবী চিন্তা-ধারা অর্থাৎ মোটামুটি দু’টো মিশনই তারা ব্যর্থ হয়েছে।
বিগত রমজান থেকে দেখা যাচ্ছে, অজানা কারণেই বেশ কিছুটা নমনীয় হয়েছেন, ওসব বক্তারা। যেমন— লা-মাজহাবীদের ব্যাপারে অবস্থান বোঝা গেল আমির হামজার বক্তব্যে। তিনি আহলে হাদীসদের তুলোধুনো করলেন। তবে এখনো বাকি আছে মওদুদী চিন্তা-ধারা। এখনো ওনাদের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি যে, মওদুদীর চিন্তা-চেতনাকে বাতিল বলেন কিনা?

এদিকে সম্প্রতি দেখা যাচ্ছে, একজন হকপন্থী চিন্তা-ধারার বক্তার সাথে তাদের অন্তরঙ্গ মুহূর্তগুলো। যেটা অনলাইনে ছড়িয়ে পড়েছে। ভাইরাল হচ্ছে খুব। চলছে নানামুখী আলোচনা অথবা সমালোচনা…।

আমরা আশা করব, ওনারা মওদুদী মতাদর্শ ত্যাগ করে আহলুন সুন্নাহ ওয়াল জামাতের ছায়াতলে মিলিত হবেন। এই কামনা রইল।

আল্লাহতা’য়ালা কবুল করুন। আমিন।

লেখক : শিক্ষক ও প্রাবন্ধিক

নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved 2018 shilonbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com