মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯, ০৬:৪২ পূর্বাহ্ন

খতমে বুখারীর সুবাতাস

খতমে বুখারীর সুবাতাস

মাওলানা আমিনুল ইসলাম : কওমী মাদ্রাসাগুলো এখন শিক্ষাবর্ষের শেষ পর্যায়ে। একে একে হাদীসের সব কিতাবগুলো শেষ হয়ে যাচ্ছে। হাদীসের সবচেয়ে বড় কিতাব বুখারী শরীফও খতম হয়ে যাচ্ছে। কোথাও কোথাও খতমে বুখারী অনুষ্ঠান হয়েও গেছে।

তাই চারিদিকে এখন খতমে বুখারীর সুবাতাস। রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশের সব জায়গাতে এখন খতমে বুখারী অনুষ্ঠান চলছে। আলোঝলমল এই বুখারী খতমের আনন্দ সবার মাঝেই দেখা যায়।

খতমে বুখারীর কথা শুনলে মনে পড়ে যায় ছাত্র জীবনের খতমে বুখারীর অনুষ্ঠানের কথা। অনেক অনেক স্মৃতি মনে পড়ে সে সময়ের।

আমাদের খতমে বুখারীতে উপসস্থিত ছিলেন, প্রখ্যাত মুহাদ্দিস আল্লামা কাজি মু’তাসিম বিল্লাহ সাহেব( রহঃ), মেহমান হিসেবে সেদিন ছিলেন শায়খুল ইসলাম আল্লামা আহমাদ শফি দামাত বারাকাতুহুম।

দুইজন মহারথী আলেমের উপস্থিতিতে খতমে বুখারী অনুষ্ঠান প্রাণবন্ত হয়ে উঠেছিল। বিশেষ করে আল্লামা কাজি মু’তাসিম বিল্লাহ সাহেবের দরাজ কণ্ঠের বয়ান এবং আল্লামা আহমাদ শফি সাহেবের হাদীসের সিলসিলায়ে সনদ( সূত্রপরম্পরা) বর্ণনা ছিল আকর্ষণীয়।

আজও বার বার মনে পড়ে কাজি সাহেব হুজুরের কথা। তিনি যখন ইলমে হাদীসের উপরে বয়ান করছিলেন, মনে হচ্ছিল মালিবাগ মাদ্রাসা মসজিদের ভবনগুলো থরথর করে কাঁপছিল। হুজুরের কণ্ঠ ছিল দরাজ। আবার অনেক স্পীডে কথাগুলো বলেছিলেন।

সে সব এখন স্মৃতি। বিশেষ করে খতমে বুখারী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে দীর্ঘ ষোল বছরের শিক্ষা জীবনের ইতি টেনে ছিলাম। আবার নতুন জীবন শুরু হয়েছিল। যে জীবন এখন চলছে।

বর্তমানেও বহু ছাত্রের খতমে বুখারীর মাধ্যমে ছাত্র জীবনের ইতি টেনে আবার নতুন জীবন শুরু হচ্ছে।

আল্লাহ তায়ালা সকলকে দ্বীনি খেদমতের জন্য কবুল করুন। আমিন।

নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved 2018 shilonbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com