রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৭:৪০ অপরাহ্ন

কৃত্রিম পা তৈরিতে বাধা

কৃত্রিম পা তৈরিতে বাধা

নিজস্ব প্রতিবেদক • কোনো লোকবল ছাড়াই রাজধানীর পঙ্গু হাসপাতালে চলছে কৃত্রিম পা সংযোজন কেন্দ্রের কাজ। বিগত কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশ ও ভারতের দুটি ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় বিনামূল্যে কৃত্রিম পা সংযোজন করা হলেও তা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল। চাহিদা মেটাতে লোকবল বাড়ানোর পাশাপাশি সংশ্লিষ্টদের দেশে বিদেশে প্রশিক্ষণ দেবার কথা ভাবছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। ক্যান্সারে পা হারানো তানজীম। রাজধানীর পঙ্গু হাসপাতালে বিনামূল্যে পা সংযোজনের খবর পেয়ে নোয়াখালী থেকে ছুটে এসেছে সে। মাসব্যাপী ৭০০ কৃত্রিম পা বিতরণের কথা থাকলেও ১৫ দিনে তা শেষ হওয়ায় বিড়ম্বনায় পড়েছে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আশা পা’হীন মানুষেরা। এমন একজন বললেন, আমাকে বলা হয়েছে পুরনো সিরিয়াল শেষ হয়ে গেছে। নতুন করে আবারও সিরিয়াল দিলে আপনাকে ফোন করে জানানো হবে। কিন্তু আমাকে কোনো ফোন করা হয়নি। তার মা জানান, আমি ছেলের জন্য এক বছর ঘুরছি কিন্তু কোনো সাড়া পাচ্ছি না।

বছরব্যাপী অপেক্ষার নানা প্রক্রিয়া শেষে যারা কৃত্রিম পা পেয়েছেন তাদের আনন্দের যেন সীমা নেই। এমন একজন বলেন, কৃত্রিম পা পেয়ে আমি খুবই খুশি। আমার জন্য চলাচল এখন অনেকটা সহজ হলো। এদিকে পঙ্গু হাসপাতালের কৃত্রিম পা সংযোজন কেন্দ্রে লোকবলের অভাবে পা তৈরি করতে পারছে না কর্তৃপক্ষ। দিন দিন কৃত্রিম হাত বা পায়ের চাহিদা বাড়তে থাকায় সরকারকে উপযুক্ত জনবল নিয়োগের পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের। অর্থোপেডিক বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. সৈয়দ সহিদুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশের অন্যান্য যেসব অর্থোপেডিক হাসপাতাল রয়েছে সেখানেও আর্টিফিশিয়াল পা সংযোজনের জন্য সেন্টার করা উচিত। সেখানে পা তৈরির জন্য সকল ধরনের সহায়তা দেওয়া উচিত। দেশের ভেতর কৃত্রিম হাত ও পায়ের চাহিদা মেটাতে জনবল নিয়োগের পাশাপাশি চিকিৎসকদের ভারতে প্রশিক্ষণের কথা ভাবছেন জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আবদুল গণি।

জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আবদুল গণি বলেন, আমাদের মূল টার্গেট হচ্ছে স্থানীয়দের এ প্রশিক্ষণ দেওয়া। এতে করে তাদের প্রশিক্ষণও হবে এবং মাঝে মাঝে এ কাজটিও করতে পারবে। ভারত ও বাংলাদেশের দুটি ফাউন্ডেশনের সহায়তায় বিগত ৩ বছর থেকে ৭০০ করে কৃত্রিম পা বিনামূল্যে বিতরণ করা হচ্ছে। তবে আগামী বছরগুলোতে রাজধানীর বাইরে বিভিন্ন বিভাগীয় শহরগুলোতে পা সংযোজনের কথা ভাবছে ফাউন্ডেশন দুটি।

শীলন/৩০৮

নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved 2018 shilonbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com