বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ০৬:১২ অপরাহ্ন

কাশ্মীর সংহতি ফোরাম : জয় হোক মানবতার

কাশ্মীর সংহতি ফোরাম : জয় হোক মানবতার

কাশ্মীর সংহতি ফোরাম : জয় হোক মানবতার

আব্দুর রহমান কোব্বাদী : পাশের দেশের মুসলমানদের দুর্দশায় উদ্বিগ্ন হ‌ওয়ার দায়ে কিছু দিন আগেও জনসম্পৃক্ত একটি ইসলামী দলের কড়া সমালোচনা করেছিল একটি মহল। তা যে শুধু হিংসা ও বিরোধিতার জন্য ছিল আজকের সমাবেশ তার প্রমাণ।

তার পরেও লক্ষণীয় বিষয়, হিংসা বিদ্বেষের কষাঘাতেও মানবতা এখনো মরেনি। জমীর এখনো জাগ্রত আছে।

পরিচিত নেতার অপরিচিত দলীয় ব্যানারে ততটা জনসমাগম হয় না। এই অসহায়ত্বটা তাঁরা নিজেরা বুঝে। তাই সর্বদলীয় অথবা নির্দলীয় ব্যানারটাই বেশি কার্যকরী। নির্দেশনা দিয়ে মাদ্রাসাগুলো থেকে ছাত্র জমায়েতের সুন্দর মাধ্যম।

অতীতেও এমন অনেক সম্মিলিত ব্যানার তৈরি হয়েছিল। বানের জোয়ারে টিকেনি সেই ব্যানারগুলো। হয়তো কিছুদিন সে ব্যানারের ছায়াতলে কিছু গরম বক্তব্য দেওয়ার সুযোগ হয়েছে।

কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয়নি। পাওয়ারের কাছে মাথা নত করে নিজেদের অস্তিত্ব বিলীন করতে হয়েছে বারবার।

আজকের সমাবেশ থেকে একাধিকবার বলা হয়েছে “সরকারবিরোধী কোনো স্লোগান হবে না।” “পুলিশের সাথে ধস্তাধস্তিতে জড়ানো যাবে না।” এ কথাগুলো যদি অন্য কোন ইসলামী দলের মঞ্চ থেকে বলা হতো তাহলে দালালের তিলক লাগিয়ে দিতো তাদের কপালে।

বড় শায়েখ আর বড় রাজনৈতিক নেতা, কিতাবি যোগ্যতা আর রাজনৈতিক দক্ষতার পার্থক্য উপলব্ধি করতে আমাদের যত দেরি হবে ততদিন হয়তো এমন নতুন নতুন সংহতি পরিষদ/ফোরাম তৈরি করতে হবে নিজেদের অস্তিত্ব জানান দেয়ার জন্য।

তুলনামূলক জনসম্পৃক্ত বৃহত্তম শক্তিকে পাশ কাটিয়ে সর্বদলীয় পরিষদের নেতাদের প্রতি ভালোবাসা রইলো।
মাঝে মাঝে এমন আয়োজন করে নিজেদের নাবালেগ সমালোচকদের সমালোচনার উত্তরটা নিজেরাই দিয়ে দিবেন।

মনের ভিতর হিংসা-বিদ্বেষ পরনিন্দা যাই থাকুক। মানবতার খাতিরে সংহতি ফোরামও কম কিসে।

তাই বলতে হয় সবকিছুর ঊর্ধ্বে ইসলাম ও মানবতার জয় হোক!

লেখক : শিক্ষক

নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved 2018 shilonbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com