শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ০২:৩৭ অপরাহ্ন

ইসলামের বিরুদ্ধে পাশ্চাত্য ষড়যন্ত্র করছে না: শেখ মোহাম্মদ আল ইসা

ইসলামের বিরুদ্ধে পাশ্চাত্য ষড়যন্ত্র করছে না: শেখ মোহাম্মদ আল ইসা

ওয়ার্ল্ড ডেস্ক : পাশ্চাত্য ইসলামের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে না বলে মন্তব্য করেছেন মুসলিম ওয়ার্ল্ড লীগের (এমডব্লিউএল) মহাসচিব ও সৌদি রাজনীতিবীদ শেখ মোহাম্মদ বিন আবদুল কারিম আল ইছা।

আরব নিউজকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, অনেক মুসলমানের মনে নেতিবাচক ধারণা কাজ করছে যে ইসলাম ও মুসলমানদের বিরুদ্ধে পাশ্চাত্যে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। কিন্তু আমার ভাই, পশ্চিমারা তাদের ধর্মীয় রাষ্ট্র পরিত্যাগ করেছেন।

তিনি বলেন, তারা জীবন পদ্ধতি হিসেবে ধর্মনিরপেক্ষতাকে বেছে নিয়েছেন। খ্রিস্টধর্মের বিরুদ্ধে লড়াই করছেন। কাজেই আপনারা কেনো ভাবছেন, তারা আপনাকে তাদের লক্ষ্যবস্তু বানিয়েছে?

আল ইছাকে ২০১৬ সারে এমডব্লিউএলের মহাসচিব হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয়। এর পর থেকেই তার কর্মকাণ্ড নিয়ে আলেম ওলামাদের সমালোচনা শুরু হয়েছে।

অধিকাংশ আলেমরা ছবি তোলাসহ শিল্পের বিভিন্ন ধরনকে নিষিদ্ধ মনে করেন। কিন্তু তিনি কেবল একজন ক্যালিগ্রাফি চর্চাকারীই নন, ছবি তোলায়ও তার উৎসাহের কমতি নেই।

মুসলিম ওয়ার্ল্ড লীগ প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৬২ সালে। এর পর থেকে এ সংগঠনটি নানা বিতর্কের জন্ম দিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু এমডব্লিউএল যতই বিতর্কের জন্ম দিক না কেন, আল ইসা ভ্যাটিকান ও হোয়াইট হাউসের মতো জায়গায় থেকে সম্মান পাচ্ছেন।

এমনকি অতি উগ্র ইসলাম বিদ্বেষীরাও আল ইসার জন্য তাদের দরজা খোলা রেখেছেন। তাদের সঙ্গে তার বৈঠক ও আলাপ হচ্ছে। যার মধ্যে ফ্রান্সের সাবেক প্রেসিডেন্ট প্রার্থী লি পেনও রয়েছেন।

সৌদি আরবের সিংহাসনের উত্তরসূরি মোহাম্মদ বিন সালমানের সংস্কার কর্মসূচি রূপকল্প ২০৩০ বাস্তবায়নের সঙ্গে তাল রেখে আল ইছা নিজের পথ তৈরি করে নিচ্ছেন।

গত বছর রিয়াদে গ্লোবাল ফোরামে মোহাম্মদ বিন সালমান বলেছেন, তিনি উগ্রপন্থাকে এখনই ধ্বংস করে দিতে চান। এছাড়া সৌদিতে আধুনিক ইসলাম ফিরিয়ে আনার কথা জানিয়েছেন তিনি।

আল ইসা বলেন, আমরা পাশ্চাত্য ও দূরপ্রাচ্যের সঙ্গে সংলাপ করেছি এবং ইসলাম সম্পর্কে একটি মূল্যায়ন ও ভালোবাসা পেয়েছি। ইসলামের সত্য সম্পর্কে জানার পর তারা সহযোগিতা করতে আগ্রহী।

তিনি বলেন, কোনো মুসলিম নারী যদি হিজাব না পরেন, তবে তাকে কাফের বলা যাবে না কিংবা তার মূল্যবোধ নিয়েও প্রশ্ন করা যাবে না। কোনো মুসলিম নারী যদি হিজাব না পরেন, তবে তিনি কাফের কিংবা ইসলাম থেকে দূরে সরে যান না।

সম্প্রতি ইসা ওয়াশিংটন ডিসি সফরে গিয়েছিলেন। সেখানে তিনি হলোকাস্ট স্মৃতি জাদুঘর পরিদর্শন করেন। এমনকি যারা হলোকাস্ট অস্বীকার করছেন, তাদের সমালোচনা ও নিন্দা জানিয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved 2018 shilonbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com