বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০১৯, ০২:০৫ পূর্বাহ্ন

ইশার ইশেতহারে ক্যাম্পাস মাদক ও দূষণমুক্ত রাখার অঙ্গীকার

ইশার ইশেতহারে ক্যাম্পাস মাদক ও দূষণমুক্ত রাখার অঙ্গীকার

ঢাবির হল থেকে বহিরাগতদের বের করে দিতে চায় ইশা আন্দোলন

ইশার ইশেতহারে ক্যাম্পাস মাদক ও দূষণমুক্ত রাখার অঙ্গীকার

শীলন বাংলা রিপোর্ট : ক্যাম্পাস মাদক ও দূষণমুক্ত রাখার অঙ্গীকারের কথা বলা হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনকে সামনে রেখে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন সমর্থিত সচেতন শিক্ষার্থী পরিষদ মনোনীত আতায়ে রাব্বী-মাহমুদুল হাসান-শরীয়াত উল্লাহ প্যানেলের ইশতেহারে।

ইশা ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শেখ ফজলুল করীম মারুফ শুক্রবার ডাকসু নির্বাচনের ইশতেহার ঘোষণা করেন।

প্রকাশিত ইশতেহারে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধারণ করে গঠনমূলক এবং দেশপ্রেমিক নেতৃত্ব গড়ে তোলার অঙ্গীকার করেছে চরমোনাই পীরের ছাত্র সংগঠন।

এছাড়া পাশাপাশি প্রথম বর্ষ থেকে বৈধ সিটের ব্যবস্থা, অ্যাপের মাধ্যমে বাস সার্ভিস চালু, লাইব্রেরির আধুনিকায়ন ও সম্প্রসারণ, প্রত্যেক শিক্ষার্থীর জন্য স্বাস্থ্যবীমা চালুসহ বেশ কিছু উচ্চবিলাষী অঙ্গীকার করেছে তারা।

ক্যাম্পাসে মাদক ও দূষণমুক্ত পরিচ্ছন্ন পরিবেশ নিশ্চিত করার বিষয়গুলো উল্লেখ করাসহ বিভিন্ন বিষয় ইশতেহারে উল্লেখ করা হয়।

ইশা ছাত্র আন্দোলন বাঙালিয়ানা ও ইসলামের ভিত্তিতে একটি মৌলিক আদর্শ ধারণ করে জানিয়ে ইশতেহারে বলা হয়, আমাদের আত্মপরিচয়ের দুটি অংশ। ভাষা ও সংস্কৃতি বিবেচনায় আমরা বাঙালি এবং গত এক হাজার বছর ধরে আমরা মুসলমান। দিনাজপুরে প্রাপ্ত শিলালিপি বলছে, বাংলাদেশের সঙ্গে ইসলামের সম্পর্ক সপ্তম শতাব্দী থেকেই।

গত হাজার বছর ধরে আমাদের এই ভূখণ্ডের মানুষের চিন্তা-কাঠামো, বোধ-বিশ্বাস, মূল্যবোধ, সংস্কৃতি ও জীবনাচারের গতিপথ নির্ধারিত হয়েছে আমাদের আত্মপরিচয়ের এই দুই অনুষঙ্গকে কেন্দ্র করেই। আমরা ২০০ বছরের ইংরেজ সাম্রাজ্যবাদের পতন ঘটিয়েছি আমাদের মুসলিম পরিচয়কে ভিত্তি ধরে। আর ১৯৭১ সালে পাকিস্তানি অন্যায়-অবিচার, বৈষম্য ও গণহত্যার মোকাবেলা করেছি আমাদের বাঙালি পরিচয়কে ভিত্তি ধরে।

ইশা ছাত্র আন্দোলন সমর্থিত প্যানেল বিজয়ী হলে সব দল ও মতের অনুসারীদের সঙ্গে সমান ও ভালো আচরণ করা হবে জানিয়ে তাদের নির্বাচনী ইশতেহারে বলা হয়, ‘আমরা কোন ‘শ্রেণি’কেই শত্রু মনে করি না। ফলে ‘শ্রেণিশত্রু খতম’ করার মানসিকতা আমরা লালন করি না।

বরং একক ঐক্যবদ্ধ জাতির অংশ হিসেবে বিভিন্ন শ্রেণির মাঝে পারস্পরিক সম্পর্ক উন্নয়ন, আলোচনা ও বোঝাপড়ার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করার চেষ্টা করি।

হলগুলোকে বহিরাগত ও অছাত্র মুক্ত করে শিক্ষার্থীবান্ধব কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা সহ ঝুঁকিপূর্ণ ভবন সংস্কারপূর্বক পর্যাপ্ত হল নির্মাণ এবং বিধ্যমান হলগুলোকে অবৈধ দখলমুক্ত করে শিক্ষার্থীদের জন্য শতভাগ আবাসনব্যবস্থা নিশ্চিত করার ঘোষণা দেয় সংগঠনটি।

পাশাপাশি গেস্টরুম ও গণরুমের সংস্কৃতির বদলে মেধার ভিত্তিতে ও প্রয়োজনানুসারে প্রথম বর্ষ থেকেই শিক্ষার্থীদের জন্য বৈধ সিট বরাদ্দের ব্যবস্থা করা হবে।

টিএসসিকেন্দ্রিক সব সংগঠন এবং আবাসনব্যবস্থা ‘রাজনৈতিক ও সাম্প্রদায়িকতা’ মুক্ত রাখারও কথাও বলা হয়েছে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন সমর্থিত সচেতন শিক্ষার্থী পরিষদ মনোনীত আতায়ে রাব্বী-মাহমুদুল হাসান-শরীয়াত উল্লাহ প্যানেলের ইশতেহারে।

নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved 2018 shilonbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com