বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ১০:০৫ পূর্বাহ্ন

আল্লামা শফি ও চরমোনাই পীরের পাশেই মন্দির, সম্প্রীতির উদাহরণ

আল্লামা শফি ও চরমোনাই পীরের পাশেই মন্দির, সম্প্রীতির উদাহরণ

আল্লামা শফি ও চরমোনাই পীরের পাশেই মন্দির, সম্প্রীতির উদাহরণ

একটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানুন!

এইচ.এম. কাওছার বাঙ্গালী : কয়েক বছর আগে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক একটি জার্নালের জরিপে বিশ্বে যারা সর্বোচ্চ ধর্মীয় প্রভাব রাখেন তাদের তালিকা প্রকাশ করা হয়। ১০০ জনের তালিকায় বাংলাদেশের দুজনের নাম প্রকাশিত হয়। এ হিসেবে যে তারা অনুসারীর দিক দিয়ে এদেশে বেশ প্রভাবশালী।

#প্রথমজন আমীরে হেফাজত আল্লামা আহমাদ শফী দা.বা. আর

#দ্বিতীয়জন আমীরুল মুজাহিদীন মুফতী সৈয়দ রেজাউল করিম, পীর সাহেব চরমোনাই।

মজার বিষয় হল-

আল্লামা আহমাদ শফি সাহেব যেই ভবনে বসে অর্ধশত বছরের অধিককাল বুখারীর দারস দিয়েছেন; সেই মাদরাসার পাশেই রয়েছে হিন্দুদের বিশাল মন্দির। মাঝখানে মাত্র একটি দেয়ালের ব্যবধান।

একশ বছরেও সেখানো কোনো সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট হয় নি। যদিও একই দেয়ালের অপর পাশে বাংলাদেশের উম্মুল মাদারিস দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম হাটহাজারীর অবস্থান, তবুও হিন্দুরা সেখানে তাদের ধর্মপালনে স্বাধীন এবং স্বগৌরবে পালন করে যাচ্ছে। প্রায় দশ সহস্রাধিক মৌলবাদী মুসলমানদের তারা মোটেও ভয় পাচ্ছে না।

আর পীর সাহেব চরমোনাই যে নামে বিশ্বব্যাপী পরিচিত সেই চরমোনাই ইউনিয়ন সারা বাংলাদেশের মধ্যে প্রথম সারির হিন্দু অধ্যূষিত এলাকা (ইউনিয়ন) । হিন্দুদের সামাজিক অবস্থান সেখানে মুসলমানদের পরপরই। ছোট-বড় মিলিয়ে প্রায় শত সংখ্যায় মন্দির থাকলেও কোথাও পূজা অর্চনা করতে সমস্যা হচ্ছেনা তাদের।

আরো মজার বিষয় হলো আজকের যিনি বিশ্বের মধ্যে ধর্মীয় প্রভাবশালীর তালিকায় তিনিই পীর হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের প্রাক্কালে ওই ইউনিয়নের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখায় আন্তর্জাতিক স্বর্ণপদক প্রাপ্ত চেয়ারম্যান।

আরো জানার বিষয় তাঁর ষষ্ঠ নাম্বার ভাই যিনি একটি ধর্মীয় সংগঠনের জাতীয় নেতা তিনিও তাঁর পরবর্তি চরমোনাই ইউনিয়নের বারবার নির্বাচিত জনপ্রিয় সফল চেয়ারম্যান।

তাহলে আন্তর্জাতিক খেতাবপ্রাপ্ত মৌলবাদীদের কাছে হিন্দু সম্প্রদায় যেই নিরাপত্তা পাচ্ছে পৃথিবীর ইতিহাসে তা নজীরবিহীন।

লক্ষনীয় বিষয় সেই মৌলবাদীদেরকেই দায়ী করা হয়েছে তাদের বাবার দরবারে। জঘন্য মিথ্যারও একটি সীমা থাকে এই বদমাস গুলোর তাও নেই।

আর মোটা দাগে বলি

এখানে সমস্য অন্য যায়গায় তা হচ্ছে বাংলাদেশের উপর আন্তর্জাতিক আগ্রাসনের অশনি সংকেত। আর এই চক্রান্ত মোকাবেলায় সরকার পরতেছে মাইকা চিপায়।

আমি বিষয়টি খুলেই লেখার আশা রাখি। আগামী দিন

ইনশাআল্লাহ!

লেখক : রাজনীতিক

নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved 2018 shilonbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com