বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০১৯, ০২:০৮ পূর্বাহ্ন

আর্জেন্টিনা দলে মেসির ফেরা

আর্জেন্টিনা দলে মেসির ফেরা

আর্জেন্টিনা দলে মেসির ফেরা

শীলনবাংলা ডটকম : দীর্ঘ বিরতি শেষে লিওনেল মেসি ফিরেছেন আর্জেন্টিনা জাতীয় দলে । এ মাসে হতে যাওয়া ভেনেজুয়েলা ও মরক্কোর বিপক্ষে দুটি প্রীতি ম্যাচের জন্য বার্সেলোনা তারকাকে নিয়ে দল ঘোষণা করেছেন কোচ লিওনেল স্কালোনি।

আট মাস পর আবারও জাতীয় দলের হয়ে মাঠে নামতে যাচ্ছেন আন্তর্জাতিক ফুটবলে ১২৮ ম্যাচে ৬৫ গোল করা মেসি। গত বছর জুন-জুলাইয়ে হওয়া রাশিয়া বিশ্বকাপে ফ্রান্সের কাছে হেরে শেষ ষোলো থেকে আর্জেন্টিনা ছিটকে পড়ার পর আন্তর্জাতিক ফুটবলে আর মাঠে নামেননি ৩১ বছর বয়সী তারকা।

আনহেল দি মারিয়াকেও দলে রেখেছেন স্কালোনি। মেসির মতো পিএসজির এই উইঙ্গারও গত বিশ্বকাপের পর মাঝে দেশের হয়ে কোনো ম্যাচ খেলেননি। তবে বৃহস্পতিবার ঘোষিত ৩১ সদস্যের দলে আগের মতোই জায়গা হয়নি দুই ফরোয়ার্ড সের্হিও আগুয়েরো ও গনসালো হিগুয়াইনের। আর চোটের কারণে বাইরে থাকা ইন্টার মিলান ফরোয়ার্ড মাউরো ইকার্দি স্বাভাবিকভাবেই ডাক পাননি।

আগামী জুন-জুলাইয়ে হতে যাওয়া কোপা আমেরিকার আগে মেসির ফেরাটা আর্জেন্টিনার জন্য দারুণ এক সুখবর। গত বিশ্বকাপে নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি সময়ের অন্যতম সেরা ফুটবলার। করেছিলেন মাত্র একটি গোল। তবে বরাবরের মতো বার্সেলোনার জার্সিতে চলতি মৌসুমে দুর্দান্ত ছন্দে আছেন তিনি। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে করেছেন ৩৩ গোল।

সংবাদ সম্মেলনে মেসির ফেরা প্রসঙ্গে স্কালোনি বলেন, “মেসিকে ডাকা হয়েছে। সে একটি নাকি দুটি ম্যাচ খেলবে, এ বিষয়ে আমরা সিদ্ধান্ত নিব। (বার্সেলোনার হয়ে) সে অনেক ম্যাচ খেলছে এবং মৌসুমের এ সময়ে খেলোয়াড়রা ক্লান্ত থাকে এবং আন্তর্জাতিক সূচিতে বিশ্রাম নেয়। কিন্তু মেসি আসতে চেয়েছে আর এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ একটা পদক্ষেপ। মেসি কতখানি খেলবে সে বিষয়ে আমি সিদ্ধান্ত নিব, অন্য কেউ নয়। আমি এখনও জানি না।”

“বিশ্বকাপে যা হয়েছিল তা আমাদের জন্য একটা ধাক্কা, মেসির জন্যও তাই। তবে এখন সে ফিরতে মরিয়া।“

২০১৪ বিশ্বকাপের ফাইনাল ও পরের দুই বছরে কোপা আমেরিকার ফাইনালে উঠেছিল আর্জেন্টিনা। কিন্তু কোনোবারই শিরোপা জিততে পারেনি তারা।

এ প্রসঙ্গে স্কালোনি বলেন, “অবশ্যই আমাদের দলে বিশ্বের সেরা খেলোয়াড় আছে। কিন্তু যেকোনো কারণেই হোক আমরা ভালো করতে পারিনি।”

“আমরা তার সঙ্গে তিনটি ফাইনালে উঠেছি। শিরোপার খুব কাছাকাছি এসেছিলাম আমরা। জয় ও হারের মাঝে খুব সুক্ষ্ম একটা পার্থক্য আছে। আমার মনে হয়, আমরা মেসির সর্বোচ্চটা কাজে লাগিয়েছি আর আর্জেন্টিনা যদি একটা ম্যাচ জিততো তাহলে গল্পটা ভিন্ন হতো।”

সাম্প্রতিক সময়ে ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে বেশ ভালো ছন্দে আছেন আগুয়েরো। তারপরও তাকে দলে না রাখাটা কিছুটা বিস্ময় জাগিয়েছে। তবে ৩০ বছর বয়সী এই স্ট্রাইকারের সঙ্গে তার কোনো সমস্যা নেই বলে জানিয়েছেন স্কালোনি।

“আগুয়েরোর সঙ্গে আমার সম্পর্ক দারুণ। তার সঙ্গে আমার কখনও কোনো মতানৈক্য হয়নি। সে খুব ভালো খেলোয়াড়। তাকে পরখ করার কিছু নেই, অন্য খেলোয়াড়দেরকে আমার দেখতে হবে।”

আগামী ২২ মার্চ আতলেতিকো মাদ্রিদের মাঠ ওয়ান্দা মেত্রোপলিতানোতে ভেনেজুয়েলার বিপক্ষে খেলবে আর্জেন্টিনা। এর চার দিন পর মরক্কোর বিপক্ষে মাঠে নামবে দুবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।

আর্জেন্টিনা দল:

গোলরক্ষক: গোলরক্ষক: ফ্রাঙ্কো আরমানি (রিভার প্লেট), আগুস্তিন মার্চেসিন (ক্লাব আমেরিকা), হুয়ান মুসো (উদিনেজে), এস্তেবান আন্দ্রাদা (বোকা জুনিয়র্স)

ডিফেন্ডার: হের্মান পেস্সেইয়া (ফিওরেন্তিনা), গাব্রিয়েল মের্কাদো (সেভিয়া), হুয়ান ফইথ (টটেনহ্যাম), নিকোলাস ওতামেন্দি (ম্যানচেস্টার সিটি), নিকোলাস তাগলিয়াফিকো (আয়াক্স), ওয়াল্তার কান্নেমান (গ্রেমিও), মার্কোস আকুনা (স্পোর্তিং লিসবন), গনসালো মনতিয়েল (রিভার প্লেট), রেনসো সারাভিয়া (রেসিং ক্লাব), লিসান্দ্রো মার্তিনেস (ডিফেন্সা হুস্তিসিয়া)

মিডফিল্ডার: লেয়ান্দ্রো পারেদেস (জেনিত), গিদো রদ্রিগেস (আমেরিকা), জিওভানি লো সেলসো (রিয়াল বেতিস), মানুয়েল লানসিনি (ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেড), রবের্তো পেরেইরা (ওয়াটফোর্ড), আনহেল দি মারিয়া (পিএসজি), মাতিয়াস জারাকো (রেসিং ক্লাব), আইভান মার্কোনে (বোকা জুনিয়র্স), দোমিঙ্গো ব্লাঙ্কো (ডিফেন্সা হুস্তিসিয়া), রদ্রিগো দে পল (উদিনেজে)

ফরোয়ার্ড: লিওনেল মেসি (বার্সেলোনা), আনহেল কোররেয়া (আতলেতিকো মাদ্রিদ), পাওলো দিবালা (ইউভেন্তুস), দারিও বেনেদেত্তো (বোকা জুনিয়র্স), লাউতারো মার্তিনেস (ইন্টার মিলান), মাতিয়াস সুয়ারেস (রিভার প্লেট), গনসালো মার্তিনেস (আতালান্তা ইউনাইটেড)

নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved 2018 shilonbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com